২২ থেকে ২৮ এপ্রিল পর্যন্ত আগের শর্ত মেনে লকডাউন কন্টিনিউ থাকবে:: “জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন”

  •  
  •  
  •  
  •  

মো:খলিলুর রহমান
সম্পাদক ও প্রকাশক
দৈনিক অপরাধ অনুসন্ধান

দেশের চলমান লকডাউনের মেয়াদ একই শর্তে আরও এক সপ্তাহ বাড়ছে বলে জানিয়েছেন জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন।

লকডাউনের মেয়াদ বাড়ানোর বিষয়ে সোমবার সকাল ১১টার দিকে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের উদ্যোগে আন্তঃমন্ত্রণালয় ভার্চুয়াল সভা অনুষ্ঠিত হয়।
সভার সিদ্ধান্তের বিষয়ে প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন দৈনিক অপরাধ অনুমন্ধানকে বলেন, “কোভিড-১৯ বিষয়ক জাতীয় টেকনিক্যাল পরামর্শক কমিটি লকডাউনের মেয়াদ আরও সাতদিন বাড়ানোর সুপারিশ করেছে। সাইন্টিফিক্যালি তো ১৪ বা ১৫ দিন লকডাউন না হলে সংক্রমণের চেইনটা পুরোপুরি ভাঙা সম্ভব হয় না।
“সেই প্রেক্ষিতে সিদ্ধান্ত হয়েছে আগামী ২২ থেকে ২৮ এপ্রিল পর্যন্ত আগের শর্ত মেনে লকডাউন কন্টিনিউ করবে। বিধিনিষেধ আরও সাতদিন বাড়ছে।”
আরও সাত দিন লকডাউন মেয়াদ বৃদ্ধি হলেও বিধিনিষেধে কোনো পরিবর্তন আসবে না জানিয়ে প্রতিমন্ত্রী বলেন, “মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে সামারি পাঠানো হয়েছে। তিনি অনুমোদন দিলে প্রজ্ঞাপন জারি হবে।”

২৮ এপ্রিলের পরও লকডাউনের পরিকল্পনা রয়েছে কিনা জানতে চাইলে ফরহাদ হোসেন বলেন, “সংক্রমণ ম্যানেজ করাটা আমাদের উদ্দেশ্য, পরিস্থিতি কী হয় সেটা বিবেচনা করেই পরবর্তীতে সিদ্ধান্ত হবে।
“আমরা মনে করছি আগামী ২২ থেকে ২৮ এপ্রিল পর্যন্ত লকডাউনে সংক্রমণটা অনেকটা নিয়ন্ত্রণে চলে আসবে।”
করোনাভাইরাস সংক্রমণের ঊর্ধ্বগতি রোধে দ্বিতীয় ধাপে ১৪ এপ্রিল থেকে দেশে চলছে ‘সর্বাত্মক লকডাউন’। এর মেয়াদ ২১ এপ্রিল পর্যন্ত।
তবে রোববার রাতে কোভিড-১৯ সংক্রান্ত জাতীয় কারিগরি পরামর্শক কমিটির ৩১তম সভায় ‘কঠোর লকডাউন’ আরও এক সপ্তাহ বাড়ানোর সুপারিশ করা হয়।
২৮ এপ্রিল পর্যন্ত লকডাউনে সংক্রমণটা অনেকটা নিয়ন্ত্রণে চলে আসতে পারে।”


  •  
  •  
  •  
  •