মুকসুদপুরে ১৬ ইউপিতে ৭৯০ প্রার্থীর মনোনয়নপত্র দাখিল

ফকির মিরাজ আলী শেখ, বিশেষ প্রতিনিধি:

 

তৃতীয় ধাপে অনুষ্ঠিতব্য গোপালগঞ্জ জেলার মুকসুদপুর উপজেলার ১৬টি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষ দিন পর্যন্ত ৭শ’ ৯০ জন প্রার্থী মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন।

এরমধ্যে চেয়ারম্যান পদে ১০০জন, সংরক্ষিত মহিলা সদস্য পদে ১৮৬ জন ও সাধারণ সদস্য পদে ৫০৪ জন প্রার্থী মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন।

চেয়ারম্যান পদে ১০০জন প্রার্থীর মধ্যে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের মনোনীত নৌকা প্রতীকে ১৬ জন, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ মনোনীত হাতপাখা প্রতীকে ৭ জন ও স্বতন্ত্র ৭৭ জন প্রার্থী মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন।

পশারগাতী ইউনিয়নে চেয়ারম্যান প্রার্থী ৫ জন। এরা হলেন, আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী রহমান মীর ও স্বতন্ত্র প্রার্থী ৪ জন। সংরক্ষিত নারী সদস্য ১০ জন, সাধারণ সদস্য ৩১ জন।

গোবিন্দপুর ইউনিয়নে চেয়ারম্যান প্রার্থী ৪ জন। এরা হলেন, আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী ওবাইদুল ইসলাম ও স্বতন্ত্র প্রার্থী ২ জন, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ ১ জন। সংরক্ষিত নারী সদস্য ১২ জন, সাধারণ সদস্য ৩৯ জন।

খান্দারপাড়া ইউনিয়নে চেয়ারম্যান প্রার্থী ৩ জন। এরা হলেন, আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী সাব্বির খান ও স্বতন্ত্র প্রার্থী ২ জন। সংরক্ষিত নারী সদস্য ৯ জন, সাধারণ সদস্য ২০ জন।

বহুগ্রাম ইউনিয়নে চেয়ারম্যান প্রার্থী ৮ জন। এরা হলেন, আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী পরিতোষ সরকার ও স্বতন্ত্র প্রার্থী ৭ জন। সংরক্ষিত নারী সদস্য ৮ জন, সাধারণ সদস্য ৩২ জন।

বাঁশবাড়ীয়া ইউনিয়নে চেয়ারম্যান প্রার্থী ৪ জন। এরা হলেন, আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী মনিরুজ্জামান মোল্লা ও স্বতন্ত্র প্রার্থী ৩ জন। সংরক্ষিত নারী সদস্য ১০ জন, সাধারণ সদস্য ৩৩ জন।

ভাবড়াশুর ইউনিয়নে চেয়ারম্যান প্রার্থী ৩ জন। এরা হলেন, আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী রিফাতুল আল মুছা ও স্বতন্ত্র প্রার্থী ২ জন। সংরক্ষিত নারী সদস্য ৯ জন, সাধারণ সদস্য ২৭ জন।

মহারাজপুর ইউনিয়নে চেয়ারম্যান প্রার্থী ৮ জন। এরা হলেন, আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী আশরাফ আলি মিয়া ও স্বতন্ত্র প্রার্থী ৬ জন, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ ১ জন। সংরক্ষিত নারী সদস্য ১৩ জন, সাধারণ সদস্য ৩৩ জন।

বাটিকামারি ইউনিয়নে চেয়ারম্যান প্রার্থী ৪ জন। এরা হলেন, আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী শাহ আকরাম ও স্বতন্ত্র প্রার্থী ২ জন, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ ১ জন। সংরক্ষিত নারী সদস্য ১৬ জন, সাধারণ সদস্য ৩১ জন।

দিগনগর ইউনিয়নে চেয়ারম্যান প্রার্থী ৬ জন। এরা হলেন, আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী মোহাম্মদ আলী শেখ ও স্বতন্ত্র প্রার্থী ৪ জন, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ ১ জন। সংরক্ষিত নারী সদস্য ৯ জন, সাধারণ সদস্য ৩৩ জন।

রাঘদী ইউনিয়নে চেয়ারম্যান প্রার্থী ৪ জন। এরা হলেন, আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী সাহিদুর রহমান (টুটুল) ও স্বতন্ত্র প্রার্থী ৩ জন। সংরক্ষিত নারী সদস্য ১২ জন, সাধারণ সদস্য ৩৯ জন।

গোহালা ইউনিয়নে চেয়ারম্যান প্রার্থী ৩ জন। এরা হলেন, আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী নজরুল ইসলাম মাতুব্বর ও স্বতন্ত্র প্রার্থী ২ জন। সংরক্ষিত নারী সদস্য ১৩ জন, সাধারণ সদস্য ২৮ জন।

মোচনা ইউনিয়নে চেয়ারম্যান প্রার্থী ৬ জন। এরা হলেন, আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী দেলোয়ার হোসেন মোল্যা ও স্বতন্ত্র প্রার্থী ৪ জন, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ ১ জন। সংরক্ষিত নারী সদস্য ১৬ জন, সাধারণ সদস্য ৩৬ জন।

উজানি ইউনিয়নে চেয়ারম্যান প্রার্থী ৪ জন। এরা হলেন, আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী শ্যামল কান্তি বোস ও স্বতন্ত্র প্রার্থী ৩ জন। সংরক্ষিত নারী সদস্য ১৩ জন, সাধারণ সদস্য ৩৪ জন।

কাশালিয়া ইউনিয়নে চেয়ারম্যান প্রার্থী ৮ জন। এরা হলেন, আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী সিরাজুল ইসলাম ও স্বতন্ত্র প্রার্থী ৬ জন, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ ১ জন। সংরক্ষিত নারী সদস্য ১১ জন, সাধারণ সদস্য ৩৩ জন।

ননীক্ষীর ইউনিয়নে চেয়ারম্যান প্রার্থী ২৫ জন। এরা হলেন, আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী শেখ রনি আহমেদ ও স্বতন্ত্র প্রার্থী ২৩ জন, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ ১ জন। সংরক্ষিত নারী সদস্য ১৩ জন, সাধারণ সদস্য ২৪ জন।

জলিরপাড় ইউনিয়নে চেয়ারম্যান প্রার্থী ৫ জন। এরা হলেন, আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী বিভা মন্ডল ও স্বতন্ত্র প্রার্থী ৪ জন। সংরক্ষিত নারী সদস্য ১২ জন, সাধারণ সদস্য ৩১ জন।

আগামী ৪ নভেম্বর প্রার্থীদের মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাই, ১১ নভেম্বর প্রার্থীতা প্রত্যাহার ও ২৮ নভেম্বর নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। এ লক্ষ্যে ১৬টি ইউনিয়নে সুষ্ঠু ও সুন্দর ভাবে নির্বাচন করার লক্ষ্যে নির্বাচন কমিশন ৬জন কর্মকর্তাকে রিটানিং কর্মকর্তার দায়িত্ব দিয়েছেন।

 

উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়ন ঘুরে দেখা যায় ৮ নং মহারাজপুর ইউনিয়ন পরিষদের বর্তমান চেয়ারম্যান ও বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা মার্কার মহারাজপুর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের ও মহান মুক্তিযুদ্ধের সংগঠক আশরাফ আলী আশু মিয়া ও ১৩ নং মোচনা ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী ও বিশিষ্ট ব্যবসায়ী, সমাজসেবক,শিক্ষা অনুরাগী, ঢাকা বিভাগ শ্রমিক লীগের সহ-সভাপতি এমদাদ হোসেন মোল্লা ভোটের মাঠে গণজোয়ার সৃষ্টি করেছেন এবং ভোটাররা সর্বতোভাবে ওই দুটি ইউনিয়নে ভোটার ও সমর্থকরা শোডাউন-পথসভা মিটিং,বাড়ি বাড়ি গিয়ে ভোট প্রার্থনা করে চলছেন এবং প্রচার-প্রচারণায় জয়ের লক্ষে এগিয়ে আছেন ওই দুজন চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী, তাদের প্রত্যাশা ইউনিয়নের পর্বের সামাজিক কাজ দেখে ভোটাররা তাদেরকে ভোট দানকরে নির্বাচিত করবেন।