মুকসুদপুরে সতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থীর ওপর সতন্ত্র প্রতিদ্বন্দী প্রার্থী ও সমর্থকদের সশস্ত্র হামলার প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন

ফকির মিরাজ আলী শেখ, বিশেষ প্রতিনিধি:

 

আগামী ২৮ নভেম্বর রোববার ৩য় ধাপে অনুষ্ঠিতব্য গোপালগঞ্জের মুকসুদপুরের ৪ নং খান্দারপাড়া ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনকে সামনে রেখে সতন্ত্র (আনারস প্রতীক) চেয়ারম্যান প্রার্থী মো. কামাল হোসেন ডাবলু’র ওপর  প্রতিদ্বন্দী স্বতন্ত্র (মোটর সাইকেল) প্রার্থী শাহিদুল মুন্সী ও তার সমর্থকদের সশস্ত্র হামলার প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

 

গতকাল বুধবার (২৪ নভেম্বর) বিকালে মুকসুদপুরের খান্দারপাড়া ইউনিয়নের ইন্দুহাটি কালী মন্দির চত্বরে আহত সতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থীর কর্মী-সমর্থক ও স্বজনেরা এ সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করেন।

 

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন স্বতন্ত্র (আনারস প্রতীক) চেয়ারম্যান প্রার্থী মো. কামাল হোসেন ডাবলু’র ভাই শাহীদুল ইসলাম (বিপ্লব)।

 

এ সময় মুকসুদপুরের ছোট ভাটরা গ্রামের মৃত-আলী আকবর মুন্সীর ছেলে হাবিবুর রহমান, মো.শাহ নেওয়াজ মুন্সী, গৌপ্তরগাতী গ্রামের মৃত মোতালেব মুন্সীর ছেলে মো. মফিজুর রহমান, স্বতন্ত্র (আনারস প্রতীক) চেয়ারম্যান প্রার্থী মো. কামাল হোসেন ডাবলু’র বিপুল সংখ্যক কর্মী ও সমর্থকরা উপস্থিত ছিলেন।

 

সংবাদ সম্মেলনে বক্তারা আসন্ন ইউপি নির্বাচনকে সামনে রেখে নির্বাচনী প্রচার-প্রচারণায় একজন প্রার্থীর ওপর প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী শাহিদুল

মুন্সী ও তার কর্মী-সমর্থকদের সশস্ত্র বর্বরোচিত হামলা, ব্যানার ফেস্টুন ছিঁড়ে ফেলা এবং নির্বাচনী প্রচার-প্রচারণায় ব্যবহৃত একাধিক মোটরসাইকেল পুড়িয়ে দেওয়ার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান। সংবাদ সম্মেলনে প্রশাসন ও আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের নিকট দোষীদের দ্রুত আইনের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান। উল্লেখ্য, বর্বরোচিত এই হামলায় গুরুতর আহত সতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী মো. কামাল হোসেন ডাবলু, মামুন খান ও তাজ উদ্দিন নামের দুই ব্যক্তি ফরিদপুর ৫০০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।