নারীর ক্ষমতায়নে ভুমিকা রাখছে মন্দির ভিত্তিক শিশু ও গণশিক্ষা কার্যক্রম -ধর্ম প্রতিমন্ত্রী মো. ফরিদুল হক খান এমপি

  •  
  •  
  •  
  •  

নিজস্ব প্রতিবেদক:

গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের ধর্ম প্রতিমন্ত্রী মো. ফরিদুল হক এমপি বলেছেন, ‘নারীর ক্ষমতায়নে গুরুত্ব ভুমিকা রাখছে মন্দির ভিত্তিক শিশু ও গণশিক্ষা কার্যক্রম প্রকল্প।এ প্রকল্পের আওতাধীণ ছয় হাজার ৪৫০টি কেন্দ্রের নিয়োগকৃত শিক্ষকের মধ্যে ৮৪ শতাংশ নারী।এসব কেন্দ্রে শিক্ষা গ্রহণ করছে এক লাখ ৯২ হাজার ২৫০জন শিক্ষার্থী।’

গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে প্রকল্পটির পঞ্চম পর্যায়ের শেষ মুহুর্তে আয়োজিত ভার্চুয়াল জাতীয় সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে ধর্ম প্রতিমন্ত্রী মো. ফরিদুল হক খান এমপি উপরোক্ত কথা গুলো বলেন।

প্রকল্পটির পরিচালক(অতিরিক্ত সচিব) রঞ্জিত কুমার দাসের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় বিশেষ অতিথি হিসাবে আরও বক্তব্য রাখেন খুলনা-৫ আসনের সংসদ সদস্য নারায়ন চন্দ্র চন্দ, ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. নুরুল ইসলাম,হিন্দু ধর্মীয় কল্যান ট্রাস্টের ট্রাস্টি অধ্যাপক ডা. প্রাণগোপাল দত্তসহ প্রমুখ। এসময় বিভিন্ন জেলা থেকে জেলা প্রশাসক, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা, প্রকল্প সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা, কেন্দ্র মনিটরিং কমিটির সদস্য, সাংবাদিক, অভিভাবকসহ প্রমুখ।

প্রধান অতিথি ধর্ম প্রতিমন্ত্রী আরও বলেন, সরকার হিন্দু ধর্মের কল্যানে কাজ করছে। এজন্য হিন্দু ধর্মীয় কল্যান ট্রাস্টের মূলধন ২১ কোটি থেকে বাড়িয়ে ১০০ কোটিতে উন্নীত করেছে।

 

বক্তব্যে প্রকল্প সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা দাবি করেছেন, ১৮ বছর ধরে চলমান মন্দির ভিত্তিক শিশু ও গণশিক্ষা কার্যক্রম প্রকল্পটিতে কাজ করা বেশিরভাগ কর্মকর্তা-কর্মচারী, শিক্ষকবৃন্দের সরকারি চাকুরির বয়স অনেক আগেই অতিক্রম করেছে।ফলে প্রকল্পটিকে রাজস্বখাতে নেওয়ার দাবি উঠেছে।

তাদের দাবির সঙ্গে একমত পোষন করে বক্তব্য রাখেন অনুষ্ঠানের বিশেষ অতিথি হিন্দু ধর্মীয় কল্যান ট্রাস্টের ট্রাস্টি অধ্যাপক ডা. প্রাণগোপাল দত্ত।


  •  
  •  
  •  
  •