দুর্ধর্ষ ছিনতাই কার্যক্রমে জড়িত থাকার অভিযোগে চট্টগ্রামে এক নারী টিকটকার গ্রেফতার

শুক্রবার (৩০ জুলাই) দিবাগত রাতে থানার আগ্রাবাদ এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

পুলিশ জানায়, ফারজানা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে টিকটকার হিসেবে পরিচিত। কিন্তু তিনি বাস্তবে একজন ছিনতাইকারী। তার বিরুদ্ধে আটটি মামলা রয়েছে। দুইদিন আগে তার স্বামী রুবেলকেও অস্ত্র ও ছোরাসহ গ্রেফতার করা হয়েছে। তার বিরুদ্ধেও বিভিন্ন থানায় ১১টি মামলা রয়েছে। বর্তমানে রুবেল পুলিশের রিমান্ডে রয়েছে।
পুলিশ আরও জানায়, ফারজানা দুর্ধর্ষ ছিনতাইকারী। কিশোরদের নিয়ে তার নিজস্ব একটি ছিনতাইকারী দলও আছে। সে নারী ও পুরুষের কাছ থেকে আলাদা কৌশলে ছিনতাই করে। একা চলাচলরত কোনো পুরুষকে প্রথমে টার্গেট করে। এরপর ঠিকানা জিজ্ঞাসা করার নামে তাকে থামায়। থামলেই ছোরা দেখিয়ে তার কাছে থাকা টাকা ও মোবাইল দিয়ে দিতে বলে, নতুবা তার বিরুদ্ধে ‘ইভটিজিং ও ‘যৌন’ হেনস্থার অভিযোগ আনার হুমকি দেয়। এতে ভয়ে সবকিছু দিয়ে দেয় ভুক্তভোগীরা।

আবার নারীদেরও একই কৌশলে থামিয়ে গলার চেইন ও কানের দুল ছিনতাই করে ফারজানা। এক্ষেত্রে অনেকের কান ছিড়ে যায় এবং গলা কেটে যায়।
ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে ডবলমুরিং থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি মোহাম্মদ মহসিন দৈনিক অপরাধ অনুসন্ধানকে বলেন, ‘গ্রেফতার ফারজানার বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট ধারায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। তাকে আদালতে প্রেরণ করা হচ্ছে।’