চট্রগ্রামে চাউলের বস্তা প্রতি ৫শ থেকে ৭শ টাকা অতিরিক্ত মূল্যে বিক্রয়ের তথ্য পাওয়া গেছে

চট্রগ্রাম প্রতিনিধি:-চট্রগ্রাম মহানগরীর বিভিন্ন হাট বাজারে
চাউলের মূল্যে বস্তাপ্রতি ৫০০-৭০০ টাকা অতিরিক্ত মূল্যে বিক্রয়ের অভিযোগ রয়েছে এলাকাবাসীর।

মহামারি নভেল করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে গত ২৫ মার্চ ২০২০ ইং তারিখ থেকে খাবারের ও ঔষধের দোকান, কাঁচাঁ বাজার ছাড়া সকল প্রকার দোকানপাট সরকারের নির্দেশে বন্ধ রয়েছেন।

এ সুবাধে কিছু অসাধু ব্যবসায়িরা চাউলের মূল্যে বৃদ্ধি/ অতিরিক্ত বস্তাপ্রতি ৫০০/৭০০শ টাকা দরে বিক্রয় করিতেছেন।

এ বিষয় ধুমপাড়া বাজার সমিতির সভাপতি মো: আলাউদ্দিন এর নিকট জানতে চাইলে তিনি জানান,

আমাদে এখন বেশী দামে খরিদ করতে হয়, সে মোতাবেক বিক্রয় বেশী
দামে করতে হয়।
তার দেয়া তথ্য এখানে তুলে ধরা হল।

স্বর্না  ২৫ মার্চ ২০২০ এর পূর্বে বস্তা বিক্রয় করিতাম ১৪০০/টাকা এখন বিক্রয় করি ২১০০/টাকা।

পাইজাম চাউল বিক্রয় করিতাম ১৫৫০/টাকা, বর্তমানে ২১৮০/টাকা।

মিনিগেট  ১৮০০/টাকা বর্তমানে ২৩৫০/টাকা।

বাশমতি পূর্বে  ২৩০০/টাকা
বর্তমানে ২৭৫০/টাকা।

বাজারে গরুর মাংস ৬৫০- ৭০০ টাকা বিক্রয় হচ্ছে।

করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে বেকার, অসহায় হয়ে পরা মানুষের বিপদ ও সমস্যার শেষ নেই।
এ বিষয় স্হানীয় প্রশাসনের দৃষ্টি আকর্ষন করছে এলাকাবাসী।