আফরোজ ড্রিমিকে নতুন একটি মোটরসাইকেল উপহার দেবেন তাঁর শ্বশুর আবদুর রশিদ শেখ।

  •  
  •  
  •  
  •  

অনলাইন ডেক্স:-মোটরসাইকেল চালিয়ে গায়ে হলুদের আসরে যাওয়া কনে ফারহানা আফরোজ ড্রিমিকে নতুন একটি মোটরসাইকেল উপহার দেবেন তাঁর শ্বশুর আবদুর রশিদ শেখ। পুত্রবধূর মোটরসাইকেল চালানোর শখ দেখে তাঁর (কনে) পছন্দের একটি মোটরসাইকেল কিনে দেওয়ার কথা জানিয়েছেন তিনি।
যশোর শহরের সার্কিট হাউসপাড়ার বাসিন্দা ফারহানার গায়ে হলুদ ছিল গত ১৩ আগস্ট। মোটরসাইকেলের বহর নিয়ে তিনি সেই অনুষ্ঠানে যোগ দেন। তাঁর মোটরসাইকেল চালানোর সেই ছবি ও ভিডিও এখন সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুক ও ইউটিউবে ভাইরাল। এ নিয়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে চলছে তুমুল আলোচনা-সমালোচনা।
টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ার হাসনাইন রাফির সঙ্গে বিয়ে হয় ফারহানার। রাফি পাবনার কাশিনাথপুরের বাসিন্দা হলেও কর্মসূত্রে তিনি গাজীপুরে থাকেন।

ফারহানার বাইক চালানো শুরু ২০০৭ সাল থেকেই। নিজে যেহেতু বাইক চালাতে পারেন, তাই গায়ে হলুদের দিনটিকে একটু ব্যতিক্রমীভাবে উদযাপনের ইচ্ছা তৈরি হয় তাঁর মধ্যে। তিনি নিজেই বন্ধুদের নিয়ে এ পরিকল্পনা করেন। এ ছাড়া হলুদের অনুষ্ঠান বন্ধুদের সঙ্গে নেচে-গেয়ে উদযাপন করেন ফারহানা।
বাইক চালিয়ে ভাইরাল হওয়া ছাড়াও আরো এক পরিচয় আছে ফারহানার। তিনি একসময়ের জনপ্রিয় নায়িকা ববিতা, সুচন্দা, চম্পার ভাতিজি।
ফারহানার শ্বশুর আবদুর রশিদ বিমানবাহিনীর অবসরপ্রাপ্ত ওয়ারেন্ট অফিসার। তিনি গণমাধ্যমকে বলেন, ‘আমার পুত্রবধূ ফারহানা মোটরসাইকেল চালাতে পারে। ছেলের সঙ্গেই সে ঢাকা শহরে থাকে। লেখাপড়ার পাশাপাশি ফারহানা ঢাকা শহরে একটি কোম্পানিতে চাকরি করে। করোনার কারণে চাকরিটা ছেড়ে দিয়েছে। পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে আবার চাকরিতে যোগ দেবে। ঢাকা শহরের যানজট এড়িয়ে নির্বিঘ্নে চলাচলের জন্য আমি তাঁর পছন্দের নতুন একটি মোটরসাইকেল কিনে দেব। তাঁর মোটরসাইকেল চালানোর অনেক শখ রয়েছে।’


  •  
  •  
  •  
  •